বিয়ানীবাজারে যাত্রিবাহী দুইটি বাসের মুখামোখি সংঘর্ষ আহত ৬০ - JONOPRIO24

Breaking

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৫

বিয়ানীবাজারে যাত্রিবাহী দুইটি বাসের মুখামোখি সংঘর্ষ আহত ৬০

সিপার আহমেদ : বিয়ানীবাজার উপজেলার আষ্টসাঙ্গন এলাকায় যাত্রিবাহী দুইটি বাসের মুখামোখি সংঘর্ষে ৬০জন আহত হয়েছেন। সোমবার সকাল ১১ টার দিকে বিয়ানীবাজার আদর্শ মহিলা কলেজ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। চালকের অবস্থায় আশংকাজনক। দুর্ঘটনার তিন ঘন্টা পর বাস কেটে আহত চালককে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজের জরুরী বিভাগে প্রেরণ করা হয়েছে। জানা যায়, বিয়ানীবাজার থেকে ছেড়ে যাওয়া ঢাকাগামী এনার (ঢাকা মেট্টো ব ১৪-৬৪১২) সাথে বিপরীত থেকে আসা সিলেটগামী যাত্রিবাহী বাসের (সিলেট জ ১১-০৪৮১) মুখামোখি সংঘর্ষ ঘটে। এ সংঘর্ষে সিলেটগামী বাসের সামনের অংশ ভেতরের দিকে ধেবে যায়। এতে ওই বাসের চালক মুজম্মীল আলী (৫০) নিজ আসনে আটকা পড়েন। দুর্ঘটনার পর ঢাকা গামী এনার চালক ও হেল্পার পালিয়েছে। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ, বিয়ানীবাজার ফায়ার ও ডিফেন্স সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করেন। বিয়ানীবাজার ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের মহরম আলী বলেন, বাসের সামনের অংশ

কেটে চালকে উদ্ধার করতে হবে। এ কাটার যন্ত্রটি আমাদের কাছে নেই। পরে বিয়ানীবাজার পৌরশহরের একটি ওয়ার্কসপ থেকে ইলেক্ট্রিক কাটার যন্ত্র নিয়ে বাসের সামনের অংশ কেটে চালক মুজম্মীলকে তিন ঘন্টা পর উদ্ধার করেন। স্থানীয় জনতার সাথে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরাও অংশ নেন। এতে তার কমর ও একটি পা ভেঙ্গে গেছে। হাত ও মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ মারাত্মক জখম হয়েছে। চালক মুজম্মীল উপজেলার বৈরাগী বাজারের খশির এলাকার হাবিব আলীর পুত্র। চালক মুজম্মীল ছাড়া গুরুতর আহত লাউতা ইউনিয়নের বাহাদুর পুর এলাকার আবুল কাসেম (২০) কে সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নুনু মিয়া (৪১), আবুল কাশেম (২১), জাহেদ আহমদ (২৪), সিরাজ উদ্দিন (৭০), এমাদ আাহমদ (২৬), নাহিদ আহমদ (২০), জামাল উদ্দিন (৪০), হানিফ আহমদ (৩০), কামিল উদ্দিন (১৯), সুমন আহমদ (১৯), সাহেদ আহমদ (২০), আবদুর রহমান (৬৫) নয়ন হোসেন (২৩), অলিউর রহমান (২৫) শাহজাহান আলী (৩২) ছালেহ আহমদ (৩৫)সহ ৫২ জন আহত হয়েছেন। আহতরা হাত, মাথা, পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত পেয়েছেন। বিয়ানীবাজার থানার এসআই জিসম উদ্দিন বলেন, ফায়ার সার্ভিসের কাটার যন্ত্র না থাকায় স্থানীয় জনতার সাহায্যে বাসের সামনের অংশ কেটে চালককে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। তার অবস্থা আশংকামুক্ত। এছাড়া দুর্ঘটনা কবলিত দুইটি বাসকে জব্দ করা হয়েছে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Top Ad

Responsive Ads Here