বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতি, জেদ্দা-র ইফতার মাহফিল ও গুণীজন সম্মানা অনুষ্ঠিত - JONOPRIO24

Breaking

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

বুধবার, ১ জুলাই, ২০১৫

বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতি, জেদ্দা-র ইফতার মাহফিল ও গুণীজন সম্মানা অনুষ্ঠিত

বাহার উদ্দিন বকুল, সৌদি আরব : সৌদি আরবের জেদ্দায় বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতি উদ্যোগে গত ২৬ শে জুন জেদ্দাস্থ আল-সালমিয়া কম্যুনিটি হলে ইফতার মাহফিল ও গুণীজন সম্মাননা সভা অনুষ্ঠিত হয় ।  ইফতার মাহফিলে পবিত্র রমজানের রহমতবরকত ও মাগফেরাতে উপর আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন মাওলানা আমিনুল ইসলাম এবং মাওলানা মাশকুরুর রহমান। এরপর প্রবাসীগণসহ মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সমৃদ্ধি কমনা করে মোনাজাত করা হয়। ইফতার পরবর্তী গুণজিন সম্মাননা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতিজেদ্দা-র সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ শাহিন সিরাজ। প্রধান অতিথির আসন অলঙ্কৃত করেন বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলজেদ্দা-র কনসাল জেনারেল এ.কে.এম শহিদুল করীম। বিশেষ অতিথিগণের মধ্যে ছিলেনকাউন্সিলর (শ্রম) মোঃ মোকাম্মেল হোসেনকনসাল (শিক্ষা ও শ্রম) রেজা-ই-রাব্বিবাংলাদেশ বিমানের জেদ্দাস্থ রিজিওনাল ম্যানেজার আবু তাহেরসমিতির উপদেষ্টাগণের মধ্যে তাজুল ইসলাম মজুমদারনাসির উদ্দিন সরকার,কাজী আমিন আহমেদইঞ্জি. আলী বদরুলমীর কাশেম মজুমদারইঞ্জি. মোহাম্মদ আবু ফারুক এবং মোহাম্মদ আরিফ। সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার বুলবুল-এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের সূচনায় ছিল পবিত্র কোরান থেকে তেলাওয়াত। অতঃপর প্রধান অতিথিকে ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করে নেন মোহাম্মদ হুমায়ূন কবিরনূরুল ইসলামআমিনুল ইসলাম ও মাসুদ হাসান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমিতির সহসভাপতি দেলোয়ার হোসেন সরকার।

প্রধান অতিথি মান্যবর কনসাল জেনারেলকে সংবর্ধনা দেয়া হয় অনুষ্ঠানে। মানপত্র পাঠ করেন সৈয়দ আবদুজ জাহের জালাল। মানপত্রে কনসাল জেনারেল মহোদয়কে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হয়। জেদ্দা কনস্যুলেটের কর্ণধার হিসেবে বাংলা স্কুল এবং ইংরেজি স্কুল নির্মাণের বিষয়টি তাঁর তত্ত্ববধানে বাংলাদেশ সরকারের সহায়তায় সম্পন্ন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি কাউন্সিলর (শ্রম) মোঃ মোকাম্মেল হোসেনকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় কনসাল জেনারেল এ.কে.এম শহিদুল করীম সমাজকল্যান মূলক কর্মকান্ডের জন্য বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতিজেদ্দা-র প্রশংসা করে বলেনপ্রবাসীরা সম্মিলিত  প্রয়াসে প্রবাস জীবনের সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করে চললে জীবনযাপন অনেক সহজতর হয়,আনন্দময় হয়। বাংলা স্কুল এবং ইংরেজি স্কুল নির্মাণের বিষয়টি কনস্যুলেট খুবই গুরুত্ব সহকারে দেখছে উল্লেখ করে তিনি বলেন,বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ দৃষ্টি রয়েছে স্কুল দুইটি নির্মাণের ব্যাপারে। ভ্রাতৃপ্রতিম সৌদি আরবের আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে প্রবাসে কাজ করার জন্যে তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বাংলা স্কুলের পক্ষে কমিটির সদস্য জনাব বাহা উদ্দিন এবং ইংরেজি স্কুলের পক্ষে চেয়ারম্যান কাজী নেয়ামুল বশির বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধাবিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনসামাজিক সংগঠনসমিতিসাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সংগঠনের নেতৃবৃন্দমিডিয়া প্রতিনিধিসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। সমাপনি বক্তৃতায় ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ শাহিন সিরাজ অনুষ্ঠানে উপস্থিতির জন্যে কনসাল জেনারেলকাউন্সিলর এবং কনসাল মহোদয়কে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। উপস্থিত সকল নেতৃবৃন্দকে এবং সমিতির কর্মকর্তা ও সদস্যগণকে অনুষ্ঠান সফলতায় ভূমিকা রাখার জন্যে ধন্যবাদ জানান। তিনি নৈশভোজে অংশগ্রহণের জন্যে সকলকে আহ্বান জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Top Ad

Responsive Ads Here