বিয়ানীবাজারে তাফসীর মাহফিলকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগ-জামায়াত মুখোমুখী ১৪৪ ধারা জারি ॥ অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি এড়াতে এ সিদ্ধান্ত- ইউএনও - JONOPRIO24

Breaking

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল, ২০১৫

বিয়ানীবাজারে তাফসীর মাহফিলকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগ-জামায়াত মুখোমুখী ১৪৪ ধারা জারি ॥ অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি এড়াতে এ সিদ্ধান্ত- ইউএনও

সুফিয়ান আহমদ,বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ বিয়ানীবাজারের মুড়িয়ায় তাফসীরুল কোরআন মাহফিলকে কেন্দ্র করে মুখোমুখী অবস্থানে রয়েছে স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও জামায়াতে ইসলামী। মুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের সম্মুখে স্থানীয় ষাইটশলা মাঠে আজ মঙ্গলবার মুড়িয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ মুড়িয়া এলাকার জামায়াত সমর্থিত নেতাকর্মীরা তাফসীরুল কোরআন মাহফিলের আয়োজন করে। সে উপলক্ষ্যে নির্ধারিত স্থানে সামিয়ানা ও প্যান্ডেল তৈরী করে আয়োজক কমিটি। এরই মধ্যে স্থানীয় আওয়ামলীগের নেতাকর্মীরা একই স্থানে সমাবেশের ডাক দেয়। যার কারণে মুখোমুখী অবস্থান নেয় স্থানীয় মুড়িয়া আওয়ামীলীগ ও জামায়াতে ইসলামী। এরই প্রেক্ষিতে অনাকাংখিত পরিস্থিতি এড়াতে উপজেলা প্রশাসন ১৪৪ধারা জারি করে।
সূত্র জানায়, দক্ষিণ মুড়িয়া এলাকার জামায়াত সমর্থিত নেতাকর্মীরা দক্ষিণ মুড়িয়া তাফসীরুল কোরআন বাস্তবায়ন পরিষদআজ মঙ্গলবার ১০নং মুড়িয়া ইউনিয়ন কমপ্লেক্স সংলগ্ন ষাইটশলা মাঠে দিনব্যাপী তাফসীরুল কোরআন মাহফিলের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। প্রচার ও বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ১৫/২০ দিন পূর্ব থেকে মুড়িয়া ইউনিয়নসহ বিয়ানীবাজার উপজেলার বিভিন্ন স্থানে পোষ্টার ও লিফলেট বিলি করে আসছেন তারা। ২৯ মার্চ রবিবার ভোর থেকে নির্ধারিত মাঠে মাহফিলের প্যান্ডেল তৈরির কাজ শুরু করেন ডেকোরেশন শ্রমিকরা। কাজ শুরুর কিছুক্ষণ পরই পুলিশ প্যান্ডেল স্থলে গিয়ে ডেকোরেশন শ্রমিকদের প্যান্ডেল তৈরীর কাজ করতে বারণ করে। প্যান্ডেল শ্রমিকরা জানান, পুলিশ এসময় তাদের কাছে এ মাহফিলের আয়োজকদের নাম ও ঠিকানা জানতে চায়। তারা পরিচিত দুএকজনের নাম বললে পুলিশ এখানে কোন মাহফিল হবে নাবলে চলে আসে। সেসময় পর্যন্ত মাহফিলের আশপাশ কোন এলাকায় কোন সংগঠনের উদ্যোগে সভা কিংবা সমাবেশ আহবান করেছে বলে কারো জানা ছিল না। মাহফিলের আগের দিন সোমবার মুড়িয়া ইউনিয়নসহ পৌরসভায় মাইকিং করে জানানো হয় যে, আজ মঙ্গলবার মুড়িয়া ইউনিয়ন কমপ্লেক্স সংলগ্ন মাঠে দেশব্যাপী বি.এন.পি জামায়াতের নৈরাজ্যের প্রতিবাদে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্টিত হবে। এর কিছুক্ষন পরই প্রশাসন দক্ষিণ মুড়িয়া ও আশপাশ এলাকায় সকল ধরনের সভা-সমাবেশ ও তাফসীরের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। যার কারণে ভেস্থে যায় তাফসীর মাহফিল ও সমাবেশ।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, একই দিন পাশাপাশি স্থানে দুপক্ষ ভিন্ন সভা আহবান করায় সংঘাত সংঘর্ষের আশংকা দেখা দিয়েছে। তাই অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি এড়াতে এস্থানে আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত  ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Top Ad

Responsive Ads Here