ফ্রান্স যুবদলের প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত - JONOPRIO24

Breaking

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

সোমবার, ১৬ মার্চ, ২০১৫

ফ্রান্স যুবদলের প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

এনায়েত হোসেন সোহেল, ফ্রান্স:  ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের মুক্তি, সভা-সমাবেশে বাধা প্রদান, গণগ্রেফতার, গুম-খুন বন্ধ এবং অবিলম্বে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে প্রতিবাদ সভা করেছে জাতীয়তাবাদী যুবদল ফ্রান্স শাখা। ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে ক্যাথসীমার রয়েল এশিয়ার বল রুমে গতকাল রোববার বিকেলে এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। জাতীয়তাবাদী যুবদল ফ্রান্স শাখা সভাপতি আহমেদ মালেকের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক তারেক আহমদ তাজ ও প্রথম যুগ্ম সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম শিপারের যৌথ পরিচালনায় প্রতিবাধ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফ্রান্স বিএনপির সভাপতি সৈযদ সাইফুর রহমান। যুবদল ফ্রান্স শাখার প্রচার সম্পাদক তারেক আহমদের পবিত্র কোরান তেলাওয়াতের মধ্যে দিয়ে শুরু হওয়া প্রতিবাদ সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ফ্রান্স বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এ তাহের,প্রথম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কবির হোসেন পাঠুয়ারীএম এ রহিম ,হেনু মিয়া ,রশিদ পাঠুয়ারী,তসলিম আলম। সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফ্রান্স বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী জালাল খান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফ্রান্স যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আলতাফ হোসেন।এ সময় অন্যান্যর মধ্যে রাখেন দপ্তর সম্পাদক সাইফুর রহমান ,সাহিত্য সম্পাদক জুনায়েদ আহমদ নাবিল ,সহ সাহিত্য সম্পাদক মুর্শেদ আলম রনি,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মালিক মুন্না,যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক নুরুল ইসলাম ,মহিলা নেত্রী শামিমা আক্তার রুবি ,সারা শফিউল্লাহ,ফ্রান্স বিএনপির অর্থ বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম,ফ্রান্স বিএনপির দপ্তর সম্পাদক মাসুদুর রহমান,ফ্রান্স বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ। প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন,যতই সময় যাচ্ছে সালাহ উদ্দিনের নিরাপত্তার ব্যাপারে আমাদের, তার পরিবারের ও দেশবাসীর উৎকণ্ঠা ততই বাড়ছে। কারণ হিসেবে বক্তারা বলেন, এ সরকার আমলে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ইলিয়াস আলী, সাবেক এমপি সাইফুল ইসলাম হিরু, বিএনপি নেতা হুমায়ন পারভেজ ও ঢাকার নির্বাচিত কমিশনার চৌধুরী আলামসহ বিরোধী দলীয় শত শত নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তারের পর অস্বীকার এবং গুম ও খুন করার ভয়ংকর নজির স্থাপিত হয়েছে। আবার গ্রেপ্তারের কথা অস্বীকারের পর নানা রকম নাটক সাজিয়ে অনেক বিলম্বে আটক দেখানোরও অনেক উদাহরণ রয়েছে। জনাব সালাহউদ্দিনের ব্যাপারে এ সরকার কোনো সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং তার ভাগ্যে কী ঘটেছে বা ঘটতে যাচ্ছে তা এখনো আমাদের অজ্ঞাত। তবে আমরা তাকে সুস্থ অবস্থায় ফিরে পেতে চাই।বক্তারা বলেন,সালাহ উদ্দিনকে বেগম খালেদা জিয়া ময়লার বস্তায় ভরে পাচার করে দিয়ে থাকতে পারেন বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে অবাস্তব, আজগুবী ও নিষ্ঠুর পরিহাস করেছেন, তার নিন্দা জানাবার ভাষা আমাদের জানা নেই। দেশবাসী তার কাছ থেকে দায়িত্বশীল বক্তব্য আশা করে-দায়িত্বহীন ও বিকৃত মানসিকতার মস্করা নয়। এমন একটি গুরুতর বিষয় নিয়ে এ ধরনের বিদ্রুপাত্মক উক্তি করে সরকার তার দায় এড়াতে পারে না। অবৈধ পন্থায় ক্ষমতাসীন হলেও শাসন-কর্তৃত্ব তাদের করায়ত্বে। কাজেই প্রতিটি নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা তাদেরই দায়িত্ব।বক্তারা অনতিবিলম্বে সালাহ উদ্দিনকে মুক্তি দেয়ার কিংবা আদালতে হাজির করার জোর দাবি জানান। অন্যথায় পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে উদ্ভূত অবস্থার দায়ভার এই অবৈধ খুনী সরকারকেই বহন করতে হবে।বাংলাদেশের মানুষ কখনও খুনী সরকারকে সহ্য করে না।এ সময় অন্যান্যর মধ্যে উপস্তিত ছিলেন ফ্রান্স বিএনপি তত্ত্ব ও গবেষণা সম্পাদক তানভির আহমেদ তুহিন,শ্রম বিষয়ক সম্পাদক তসলিম হোসেন সবুজ,সহ বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম স্বপন, গণ শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মাস্টার রফিকুল ইসলাম, যুবদল নেতা কবির আহমেদ,মুজাহিদ মিয়া আজিম হুসাইন সয়্য়েদ জাহাঙ্গীর প্রমুখ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Top Ad

Responsive Ads Here