সঙ্কট নিরসনে আলোচনা হতে পারে - JONOPRIO24

Breaking

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

সোমবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫

সঙ্কট নিরসনে আলোচনা হতে পারে

জনপ্রিয় ডেস্ক : চলমান সঙ্কট নিরসনে আলোচনা হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ। তবে সে ক্ষেত্রে বিএনপি-জামায়াতকে বর্তমান সহিংস কর্মকাণ্ডের দায় স্বীকার করে নিতে হবে বলে তিনি জানান। সোমবার বেলা ১২টায় দলের সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান। মাহবুবুল আলম হানিফ বলেন, ‘আমাদের দেশে তথাকথিত কিছু বুদ্ধিজীবী ও সুশীল সমাজ সংলাপের কথা বলে আসছে। আমি তাদেরকে বলবো বর্তমান সহিংস কর্মকাণ্ড বন্ধ করার জন্য আগে বিএনপি-জামায়াতকে চাপ সৃষ্টি করুন। তাদেরকে বলুন তাদের সহিংস কর্মকাণ্ডের দায় স্বীকার করে নেয়ার জন্য। বর্তমান সহিংস কর্মকাণ্ডের জন্য বিএনপি দায়ী নয় তাদের এমন দাবির পরিপ্রেক্ষিতে হানিফ বলেন, ‘তারা যদি এ কর্মকাণ্ডের জন্য দায়ী না হয় তাহলে তাদের সঙ্গে কি জন্য সংলাপ? বর্তমানে দেশে সঙ্কট হচ্ছে পেট্রোল বোমা মেরে মানুষ হত্যা, গাড়িতে আগুন দেয়া। এগুলো যদি তারা নাই করে থাকে তাহলে তাদের সঙ্গে কিসের জন্য সংলাপ? আমাদেরকে সংলাপ করতে হবে অন্যপক্ষের কারো সঙ্গে। কারণ দেশে এখন সঙ্কট পেট্রোল বোমা মেরে মানুষ হত্যা, গাড়িতে আগুন। তিনি বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত যদি বর্তমান সহিংস কর্মকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত না থাকে তাহলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এ কর্মকাণ্ড বন্ধ করে দেয়া সম্ভব। তাই করতে আমরা বদ্ধপরিকর।

প্রসঙ্গত, এর আগে রাজধানীর শাহবাগে আওয়ামী লীগের সমর্থিত চিকিৎসকদের সংগঠন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) এক অনুষ্ঠানে হানিফ বলেন, ‘কথা দিলাম ৭ দিনের মধ্যে দেশের চলমান সহিংস কর্মকাণ্ড বন্ধ হবে। খালেদা জিয়ার উদ্দেশে হানিফ বলেন, ‘আপনি যদি মনে করেন মানুষ পুড়িয়ে দাবিদাবা আদায় করা সম্ভব তাহলে ভুল করছেন। এটিই যদি হয়ে থাকে তাহলে ভবিষ্যতে তা বাজে উদাহরণ হয়ে থাকবে। এখন কেন সহিংস কর্মকাণ্ড বন্ধ করা যাচ্ছে না এমন প্রশ্নের জবাবে হানিফ বলেন, ‘বিএনপি ৩০ শতাংশ সমর্থন রয়েছে। তাদের লক্ষ লক্ষ কর্মী বাহিনী রয়েছে। তারা যদি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে তাহলে তাদেরকে দমন করতে একটু বেশি সময় লাগবে এটাই স্বাভাবিক। আবার সুশীল সমাজের প্রসঙ্গ টেনে এনে হানিফ বলেন, ‘জাতি আশা করে এসব সুশীল সমাজ বিএনপি-জামায়াতকে তাদের সহিংস কর্মকাণ্ড বন্ধের জন্য চাপ সৃষ্টি করবে। কাদের মোল্লার মৃত্যুর পর পাকিস্তানের পার্লামেন্টে শোক প্রস্তাব এনে তখন দেশটি দাবি করেছিল কাদের মোল্লা তাদের একজন সৈনিক। এ দাবিই প্রমাণ করে বাংলাদেশে জামায়াতের যতো লোক আছে তারা সবাই পাকিস্তানের হয়ে কাজ করছে। মিডিয়ার প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘কোথায় থেকে কোন দল একটি ম্যাসেজ পাঠিয়ে বললো আমরা ৭২ ঘণ্টা হরতাল দিলাম। আর এটা মিডিয়া ফলাও করে প্রচার করে। এতে সন্ত্রাসীরা আরো উৎসাহিত হয়। আমি আশা করবো সামনে তারা আরো দায়িত্বশীল হয়ে এগুলো প্রচার করবেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, দলের নেতা আব্দুর রাজ্জাক, ফরিদুন্নাহার, হাবিবুর রহমান সিরাজ, বদিউজ্জামান ভূঁইয়া ডাবলু, এনামুল হক শামীম, সুজিত নন্দি রায় প্রমুখ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Top Ad

Responsive Ads Here