খালেদা-তারেকের পদত্যাগ দাবিতে ‘আসল বিএনপি’র হরতাল - JONOPRIO24

Breaking

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

শুক্রবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫

খালেদা-তারেকের পদত্যাগ দাবিতে ‘আসল বিএনপি’র হরতাল

এসবিএন ডেস্ক : শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শে অনুরণিত নবধারার কার্যত আসল বিএনপিদলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের পদত্যাগের দাবিতে আগামী রোববার বেলা ১২টা থেকে ৩টা ১৭ মিনিট পর্যন্ত হরতাল ডেকেছে। শুক্রবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) এক সংবাদ সসম্মেলনে এ ঘোষণা দেন বিএনপির ক্রান্তিকালীন রাজনীতির সঙ্কটকালীন মুখপাত্র কামরুল হাসান নাসিম। এই সময় দলের অপরাপর নেতাদের মধ্যে আবুল খায়ের, আব্দুল মান্নান, আযহারুল ইসলাম, টিপু মীর, সেলিম আহমেদ, আয়শা আক্তারসহ বেশকয়েকজন নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। কামরুল হাসান নাসিম বলেন, ‘আমরা দেখতে পারছি বেগম খালেদা জিয়া এখন আর রাজনৈতিক দল নয়, অপশক্তির ধারক। সঙ্গত কারণে তার পদত্যাগ করা এখন বিএনপির মনের দাবি। ঠিক সে কারণেই আগামী রোববার বেলা ১২টা থেকে ৩টা ১৭ মিনিট পর্যন্ত বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের পদত্যাগের দাবিতে হরতালআহ্বান করা হলো।সংবাদ সম্মেলনে এ হরতালের বিশিষ্টও তুলে ধরা হয়। যেখানে বলা হয়- ১. সারাদেশবাসীকে অনুরোধ করা গেলো আপনারা যোহরের নামাজ আদায় করে চলমান নাশকতা বন্ধ করার জন্য বাংলাদেশের জন্য দোয়া চাইবেন। একই সঙ্গে আমাদের মাবেগম খালেদা জিয়ার শুভবুদ্ধির উদয়ে রাজনীতি থেকে অব্যাহতির জন্য প্রার্থনা করবেন। কারণ তিনি নাশকতার নেতৃত্ব দিয়ে নিজের জন্য রাজনীতি করছেন।২. কেবলমাত্র বেগম খালেদা জিয়াকে সামনে রেখে প্রতীকী পিকেটিংকরা হবে। যা আগামীকাল ওই ধরন সম্পর্কে অবগত করা হবে। ৩. চলমান রাজনৈতিক সংস্কৃতিতে ভয়তালআদলে নয় আমরা ঐতিহ্যগত হরতালে বিশ্বাসী। যেখানে গণমাধ্যম হরতাল কর্মসূচি প্রচার বা প্রকাশ করবে। আর স্বেচ্ছায় রাষ্ট্রকে ৩ ঘণ্টা ১৭ মিনিট  অসহযোগিতা করবে সারাদেশের মানুষ।
নাসিম বলেন, ‘সমসাময়িক রাজনীতিতে আমাদের দলের অবৈধ নেতৃত্ব দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পদত্যাগের দাবিতে আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শেষ আল্টিমেটাম দেয়া হয়েছে। আমরা আশা করবো বহুল কলঙ্কিত এই দিনটিকে পরাস্ত করে শুভবুদ্ধির পরিচয় দিয়ে এই দিনে বেগম খালেদা জিয়া পদত্যাগ করে দলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার নজীর দেখাবেন। কারণ স্বাধীনতা বিরুদ্ধ শক্তিকে নিয়ে দেশকে রাজনৈতিক অস্থিতিশীল করা হয়তো যায় কিংবা সরকার পতনের প্রচেষ্টা গ্রহণ করা যায় অথবা সুশীল নামধারী উচ্চাভিলাসী রাজনীতিকদের হাতে অগণতান্ত্রিকভাবে ক্ষমতা সঁপে দিয়ে ভবিষ্যৎ রাজনৈতিক ফায়দা গ্রহণ করা যায় কিন্তু রাজনীতির বিজয় অর্জনে তা অপশক্তির ধর্মকে কাছে টানে বলে বিএনপি বিশ্বাস করে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Top Ad

Responsive Ads Here